মাহিকে জুতা পেটা করার ইচ্ছা যুবকের | Mahiya Mahi

এক ভিডিও বার্তায় রাজশাহী-১ আসনের চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে জুতা পেটার হুমকি দেয় তানোরের তালন্দের কালনা পূর্বপাড়ার মাহবুবুর রহমান মাহাম নামের এক যুবক। জানা গেছে ঐ যুবক মৃত ছদের আলীর ছেলে।

ওই ভিডিওতে তিনি বলেন, মাহি আপনাকে বলতে চাই যে, আপনি চলচ্চিত্র জগতের মানুষ। চলচ্চিত্র জগৎ থেকে আপনি উঠে এসেছেন রাজনীতির মাঠে। আপনার অতীত থেকে শুরু করে এ টু জেড সবকিছু জানা আছে সবারই। অনেক তথ্যই আপনার জানি। চলচ্চিত্র জগতের মানুষ কেমন হয় আপনিও তা জানেন। আপনি যেখানে নক দিয়েছেন ইনি একজন শহিদ পরিবারের সন্তান তাই আমি বলব আপনি ভুল জায়গায় নক দিয়েছেন।

 

তিন তিনবারে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীকে নিয়ে নেগেটিভ-পজেটিভ মন্তব্য করার আগে নিজের প্রজিশনটা বিবেচনা করবেন। আপনি সর্ব প্রথমে একটি বিয়ে করেছিলে গ্রামে। তাকে ডিভোর্স দিয়েছেন। পরে আবার দ্বিতীয় বিয়ে করেন সিলেটে। তাকেও ডিভোর্স দিলেন। এখন আবার তৃতীয় বিয়ে করেছেন। আপনি ঢাকাতে এসে এমপি ওমর ফারুককে নিয়ে মন্তব্য করেছেন। আমি জানতে চাই কেনো?

আপনি যদি তানোর-গোদাগাড়ীর জনগণের ভোট পেতে চান তাহলে সুন্দরভাবে ভোট চেয়ে যান। আপনি পাড় হলে তানোর-গোদাগাড়ীর উন্নয়ন তো দূরের কথা হাজার হাজার ছেলে-মেয়ে নষ্ট হবে। আপনার মতো চরিত্রহীন মহিলাকে আমি আবারো বলছি, এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীকে নিয়ে আবারো যদি একটা বাজে মন্তব্য কখনও করেন তাহলে বলার মত ভাষা নেই আমার। আপনার মত মহিলাকে জুতা দিয়ে পেটানো উচিত। আপনি এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বাসার কাজের মেয়ে হওয়ার যোগ্য না।

এই বিষয়টি নিয়ে মাহাবুর রহমানের মুঠোফোনে কল করা হলেও তিনি সাড়া দেননি। ফলে এ বিষয়ে তার কোনো বক্তব্যও পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে রাজশাহী-১ আসনের নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিল্লাল হোসেন (ইউএনও) বলেন, ভিডিওটি আমাদের চোখে পরেছে। বিষয়টি খুতিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত ২৪ ডিসেম্বর রোববার মাহাবুর রহমান মাহামকে নোটিশ পাঠিয়েছেন যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালত এবং নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি রাজশাহী-১ আসনের উপজেলা তানোর চেয়ারম্যান আবু সাঈদ। নোটিশে জানানো হয় যে, আগামী বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে
এই ভিডিও বার্তার ব্যাখ্যা দিতে বলেছেন।

নোটিশে আরো বলা হয়েছে, উক্ত আচরণের মাধ্যমে আপনি আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি ১১(ক) অতিক্রম করেছেন। আর তাই নির্বাচন-পূর্ব অনিয়ম হিসেবে গণ্য হয়েছে তার এর দায়ে আপনার বিরুদ্ধে কেন উল্লিখিত বিধিমালার বিধি ১৮ অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না! এই মর্মে নিম্নস্বাক্ষরকারীর কার্যালয়ে আগামী ২৭ ডিসেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় নিজে উপস্থিত হয়ে আপনার কথার ব্যাখ্যা প্রদানের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।

 

All Bangla Newspaper or News Free to read free from same place and know more about them All Newspaper Bangla best.

Leave a Comment