সাকিব-তামিমের অনেক আগে দেশ | The Country Of Shakib-Tamim

আমাদের কাছে তো সাকিব-তামিমের অনেক আগে দেশ। আমি এটার ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনো ভীত।

এরা কোন ভাবেই দেশের আগে তো বড় ভাই না। ডেভিড ওনার ৩৭ বছর বয়সে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরে নেয়। তামিম আবার ৩৫ বছর বয়সে খেলতে পারছে না সে অবসরে যাচ্ছে। আমরা যা করে যাচ্ছি আমাদের জুনিয়াররা তা শিখছে।

সাকিব এবং তামিম থেকে যে জিনিসটা বের হলো এই লেগেছিটা আরো কতদিন আমাদের পরবর্তী ক্রিকেটারদের মধ্য থাকবে এইটা নিয়ে আমি ভীত।

বিশ্বকাপের আগে সাকিব তামিম এই যে একটা দ্বন্দ্বের বিষয় আবারো চলে আসছে সামনে এবং শেষ পর্যন্ত তামিম ইকবালের বিশ্বকাপে যাওয়া হলো না এটা কতটুকু দুঃখজনক বিষয়।

এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, আমি বেসিক্যালি সাধারণত দুজনের কাছে এটা আশা করিনি। কে শুরু করছে বা কে শেষ করছে এটা বড় বিষয় না। বড় বিষয়টা হচ্ছে যে,অন্তত বাংলাদেশের দিকে তাকিয়ে দুজনের একই জায়গায় থেকে একই প্ল্যাটফর্মে থেকে ফাইট করা। তবে এটা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য কোনভাবেই উপকার তো হয়নি বরং এত বেশি ক্ষতি হয়েছে এটা বলে শেষ করা যাবে না।

কোনভাবেই কি কমানো যেত না তামিম ইকবাল ও সাকিবের দূরত্ব! এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, কিছু না কিছু করা যেত বা কিছু না কিছু করা উচিত ছিল। ওই সময়টা আসলে খুবই খারাপ লেগেছে।

একজন ক্রিকেটার হিসেবে একজন প্রাক্তন খেলোয়াড় হিসেবে মনে হয়েছে যে আমরা হেল্পলেস হয়ে যাচ্ছি। আমাদের দুই সেরা ক্রিকেটারকে একসাথে চাচ্ছিলাম। তবে আমাদের কাছে সাকিব তামিমের অনেক আগে দেশ। এরা কোন ভাবেই তো দেশের আগে বড় ভাই না।

এ দুজনকে তো আমাদের দেশের ক্রিকেটের জন্য দরকার ছিল। তাদেরকে যদি আমরা ওয়ার্ল্ড কাপে পেতাম সেটা তো আমাদের জন্য আরো আনন্দের হতো তাতে আমরা কিছু অর্জন করতে পেতাম।

মাশরাফি বিন মর্তুজা আরো বলেন, আমি সব সময় দলের পক্ষে ছিলাম এখনো আছি, থাকবো এমনকি দলের পক্ষে কথা বলব কিন্তু আমার জুনিয়র ক্রিকেটাররা কি এই লেগেছিটা টেনে নিয়ে যাবে আরো! এটা নিয়ে আমি সন্দীহান আছি। এই লেগিছিটা যেন বাংলাদেশের ক্রিকেটে ক্ষতিকর না হয়। আমি এটাই চাই।

All Bangla Newspaper or News Free to read free from same place and know more about them All Newspaper Bangla best.

Leave a Comment