৬০ বছরই মোশতাকের সাথে ১৮ বছরই তিশার বিয়ে-Tisha’s wedding

বয়সে নিজের থেকেও ৪২ বছরের বড় এক বৃদ্ধকে অবিবাহিত তরুনী বিয়ে করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছেন। পরিবারের সিদ্ধান্তের সম্পূর্ণ বাইরে এসে ঢাকার মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের একাদশ শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী সিনথিয়া ইসলাম তিশা প্রেমে পড়ের ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মোশতাক আহমেদ ওরোফে কিং মোস্তাকের।

বয়সের এত পার্থক্য রূপে গুনে ও লাবণ্যে কোনো অংশেই কম নন সিনথিয়া ইসলাম তিশা। মধ্যবিত্ত পরিবারে বেড়ে উঠা তবে কেনো হঠাৎ নানা বা দাদার বয়সী লোকের প্রেমে পড়লেন আর কেনই বা এমন বয়স্ক মানুষকে করলেন জীবন সঙ্গী। কি এমন যাদু রয়েছে কিং মোস্তাকের কাছে! যেটি দিয়ে ঘায়েল করলেন তরুনী তিশাকে। এমন নানান প্রশ্ন উঠেছে তাদেরকে ঘিরে।

দুজনের মধ্য বয়সের এত বেশি পার্থক্য তবুও কেনো এত প্রেম তাদের মধ্য আর কিভাবেই বা হলো দুজনার প্রথম পরিচয়!
তিশা ও মোস্তাক জানাই তাদের ফেসবুকে পরিচয় পরে কথা বার্তা ভাব বিনিময় যা ঘটে খুব দ্রুতই।

তিশা একটি জবানবন্ধি দিয়ে বলেছেন, আমি একজন প্রাপ্তবয়স্ক এবং একজন সাবালিকা মেয়ে। আমি নিজের ইচ্ছায় মোশতাককে বিয়ে করেছি। সে বিয়ে করার জন্য আমাকে জোর করেনি। আমার বাবার দায়ের করা মামলার উদ্দেশ্য হলো আমার স্বামীকে হয়রানি করা এছাড়া আর কিছু না।

তিশা আরো বলেন, আমি একজন সাবালিকা মেয়ে আমি সব বুঝি। তাই আমি আমার নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নিতেই পারি, আমি মনে করি এ নিয়ে কারো মাথা ব্যাথা থাকতে পারে না। তাই আমার সিদ্বান্ত আমি নিতে চাই। এ নিয়ে আদালতে আবেদন করি পরে আদালতের রায়ে তাকে নিজের সিদ্ধান্তে যেতে অনুমতি দেয়।

গত বছরের জুলাই মাসে এ ঘটনা ঘটে। ৬০ বছরই মোশতাকের সাথে ১৮ বছরই তিশার বিয়ে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় খন্দকার মোশতাক ও তিশাকে নিয়ে নতুন বিতর্কের সৃষ্টি হয়। তারা বেশ কয়েক দিন ধরে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে তাদের সম্পর্কের কথা বলে আসছে। বিভিন্ন টেলিভিশন সাক্ষাৎকারেও দেখা যায় তাদের।

মোশতাককে বিয়ে করতে বাড়ি থেকে পালিয়ে আসেন তিশা। টেলিভিশনেও তিনি এই গল্প বলেছেন। তিশা বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে আমাকে একটি বাড়িতে তালা দিয়ে সব গেট বন্ধ করে রাখা হয়েছে। কিন্তু দোতলার ছাদের চাবি কোথায় রেখেছি আমি তা জানতাম তাই আমি দোতলার ছাদে উঠে পরিকল্পনা অনুযায়ী সেখান থেকে লাফ দেয়। নিচে বালু থাকাতে আমার কোনো সমস্যা হয়নি।

পরে এক সাক্ষাৎকারে ৬০ বছর বৃদ্ধ মোশতাক বলেন, তিশা আমাকে ফোন করে বলেছিলো যে তাকে তালবদ্ধ করে রাখা হয়েছে আর আমি যেনো তাকে নিয়ে আসি। সে আমাকে তার পরিকল্পনার কথা বলে পরে আমি তাকে বালিতে ঝাঁপ দিতে বলি যাতে সে আঘাত না পায়। আর তিশা সেভাবেই ছাদ থেকে লাফ দেয়।

গত ২২ জুন আইডিয়াল স্কুলের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মোশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁও আদালতে অপহরণ ও ধর্ষণের মামলা করেন মেয়েটির বাবা সাইফুল ইসলাম। এই মামলার কথা মাথায় রেখে ওই ছাত্রী ঠাকুরগাঁওয়ের আদালতে গিয়ে জবানবদ্ধি দেন যে, তার স্বামী মোশতাক তাকে অপহরণ বা ধর্ষণ করেনি। জবানবন্দির পর ছাত্রী ও তার স্বামী মোশতাক আহমেদ ঢাকায় চলে যান।

meta:সিনথিয়া ইসলাম তিশা ও মোস্তাকের আহমেদের পরিচয়। ৬০ বছরই মোশতাকের সাথে ১৮ বছরই তিশার বিয়ে নিয়ে,ঢাকার আইডিয়াল স্কুলের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মোশতাক আহমেদ বলেন।

All Bangla Newspaper or News Free to read free from same place and know more about them All Newspaper Bangla best.

Leave a Comment